Tuesday, December 31, 2019

মুসলিমদের তালাক নিয়ে ভুল ফতওয়া ও অপপ্রচারে লিপ্ত উগ্র হিন্দুত্ববাদী ওসি প্রদীপ কুমার দাস


হাসান বিন মুমিন।। গত দুইদিন থেকে ফেসবুকে একটি পোষ্টার/দেয়াল লিখন ভাইরাল হয়েছে যেখানে লিখা তিন তালাক বিচ্ছেদ নয়, মুছে যাক সংশয় প্রচারেঃ টেকনাফ মডেল থানা, কক্সবাজার

ব্যপারটি নিয়ে খোজ করলে জানা যায় যে, ভারতীয় বিজেপিপন্থী টেকনাফ থানার উগ্র হিন্দুত্ববাদী ওসি প্রদীপ কুমার দাস পোস্টারিং করে প্রচার করছে যে তিন তালাক দিলে বিচ্ছেদ হয় না! অথচ ইসলামী শরীয়তের বিধান অনুযায়ী যেকোন অবস্থায় মুখ দিয়ে তিন তালাক দিলেই স্ত্রী তালাক বা বিবাহ বিচ্ছেদ হয়ে যায়!

উগ্র হিন্দুত্ববাদী ইসলাম বিদ্বেষী ভারতের আইন হলো তিন তালাক দিলে বিচ্ছেদ হয়না! ভারতের আইন প্রদীপ কুমার দাস বাংলাদেশে বাস্তবায়ন করার মিশন নিয়ে মাঠে নেমেছে!

কুরআন সুন্নাহ ও শরীয়ত এর অনুসরকারী একজন ধর্মপ্রাণ মুসলিম কোন অবস্থায় এই বিষয়টা মেনে নিতে পারেনা কারণ এতে তার ঈমান চলে যাবে।

এছাড়াও এই ব্যপারে দেশের প্রথম সারীর মুফতি মুহাদ্দিসদের নিকট জানতে চাইলে তারা বলেনঃ মুসলিমদের ধর্মীয় একটি স্পর্শকাঁতর বিষয়ে কথা বলার কোন অধিকার যেখানে খোদ সরকারেরও নেই সেখানে ৯৫% মুসলিমদের ভ্যাট টাক্সের টাকার চাকর একজন অমুসলিম পুলিশ কর্মকর্তা কিভাবে ফতওয়া দিচ্ছে তা বোধগম্য নয়

রাজারবাগ দরবার শরীফের মুফতি বিভাগে যোগাযোগ করা হলে তারা বলেনঃ কেউ যদি এক সাথে তিন তালাক দিয়ে ওসি প্রদীপ কুমার দাস এর কথা শোনে আবারো স্ত্রীর সাথে সংসার চালিয়ে যায় তাহলে তা জিনা হবে, এবং তাদের সহবাসে কোন সন্তান জন্ম নিলে তা জারজ বলে গন্য হবে।

এছাড়াও ফেসবুকে অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করে প্রতিবাদ জানাচ্ছেন এবং উগ্রহিন্দুত্ববাদী ওসি প্রদীপ কুমার দাসের পদ থেকে বহিষ্কার ও শাস্তির দাবিও তুলেছেন।


শেয়ার করুন

0 facebook: